বাড়ছে যমুনার পানি, বন্যা ও ভাঙ্গন আতঙ্কে নদী তীরবর্তীরা

যমুনা নদীর পানি সিরাজগঞ্জ পয়েন্টে গত ২৪ ঘন্টায় ২০ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়েছে।

বাড়ছে যমুনার পানি, বন্যা ও ভাঙ্গন আতঙ্কে নদী তীরবর্তীরা

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

যমুনা নদীর পানি সিরাজগঞ্জ পয়েন্টে গত ২৪ ঘন্টায় ২০ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়েছে। পানি বাড়ায় চরাঞ্চলের নিমাঞ্চল তলিয়ে গেছে। এতে কৃষকের সবজি ক্ষেত, তিলক্ষেত ও সজ ক্ষেত তলিয়ে যাওয়ায় কৃষকরা ক্ষতির মধ্যে পড়ছে। এছাড়াও পানি বাড়ায় সদর উপজেলার কাওয়াকোলা চরের বিভিন্ন পয়েন্টসহ যমুনার অরক্ষিত অঞ্চলে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে।

এতে নদী তীরবর্তী মানুষের মধ্যে ভাঙ্গন ও বন্যা আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

পাউবো সূত্র বলছে, শুক্রবার সকালে সিরাজগঞ্জ শহররক্ষা বাঁধ হার্ড পয়েন্টে যমুনা নদীর পানির সমতল রেকর্ড করা হয়েছে ১১ দশমিক ৯৭ মিটার। ২৪ ঘণ্টায় ২০ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ৯৩ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে (বিপদসীমা-১২ দশমিক ৯০ মিটার)।

কাওয়াকোলা ইউপি চেয়ারম্যান জিয়া মুন্সী জানান, পানি বাড়ায় একদিকে চরের তিল ক্ষেত, সবিজ ক্ষেত ও সজ ক্ষেত তলিয়ে যাচ্ছে।

অন্যদিকে, পানি বাড়ায় কাওয়াকোলা ইউনিয়নের বড় কয়রা ও ছোট কয়রা এলাকায় ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। এছাড়াও জেলার অন্যান্য উপজেলার চরের বিভিন্ন পয়েন্টসহ যমুনার পশ্চিম তীরবর্তী সদর উপজেলার বাঐতারা, পূর্ব মোহনপুর, বেলুটিয়া ও খোকশাবাড়ী এলাকার নিম্নাঞ্চল তলিয়ে গেছে। রাস্তাঘাট তলিয়ে যাওয়ায় চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে। শাহজাদপুরের কৈজুরী ও পাঁচিলসহ যমুনার  অরক্ষিত অঞ্চলে ভাঙ্গন দেখা দেয়া নদী তীরবর্তী মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাহবুবুর রহমান জানান, যমুনার পানি সিরাজগঞ্জে পয়েন্টে আরো অন্তত চারদিন বাড়বে। এতে বিপদসীমা অতিক্রম করে ছোট বা মাঝারী ধরনের বন্যা হতে পারে।

news24bd.tv/DHL

পাঠকপ্রিয়