ক্রোয়েশিয়াকে ধরাশায়ী করে উড়ন্ত সূচনা স্পেনের

ইউরো ২০২৪

ক্রোয়েশিয়াকে ধরাশায়ী করে উড়ন্ত সূচনা স্পেনের

অনলাইন ডেস্ক

ইউরোর 'গ্রুপ অব ডেথ' এ আজ বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় মুখোমুখি হয়েছিলো সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন স্পেন এবং বিশ্বকাপের সাবেক রানার্স আপ ক্রোয়েশিয়া। ইউরোতে স্পেন এবং ক্রোয়েশিয়ার তিন বারের মুখোমুখিতে দুই বার জয় পেয়েছিলো স্পেন অন্যদিকে একবার জয় পায় ক্রোয়েশিয়া।

শক্তি সামর্থ্যের দিক দিয়ে দুই দলের হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস থাকলেও ক্রোয়েশিয়াকে ৩-০ গোলে একরকম পর্যুদস্ত করে ইউরোতে উড়ন্ত সূচনা করলো স্পেন।

১৫তম মিনিটে পেদ্রির কাছ থেকে বল পেয়ে বক্সের ভেতর ভালো একটা সুযোগ পেয়েছিলেন ইয়ামাল।

তবে লক্ষ্যে রাখতে পারেননি। ১৬ বছর ৩৩৮ দিন বয়সে এই ম্যাচে মাঠে নেমেই ইউরোর ইতিহাসে সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড় হয়েছেন বার্সেলোনার এই প্রতিভাবান ফুটবলার।

শেষ অব্দি ২৯তম মিনিটে দুই বারের ইইরো চ্যাম্পিয়ন স্পেনকে লিড এনে দেন মোরাতাই। রুইসের থ্রু বল ধরে বক্সের ভেতর থেকে নেওয়া শটে ঠিকানা খুঁজে নেন স্পেন অধিনায়ক।

মিনিট তিনেক পর ফের ক্রোয়েশিয়ার জালে বল। গোলটা রুইস করলেও বড় একটা কৃতিত্ব পেতেই পারেন ইয়ামাল। ডান দিকে বক্সের বাইরে পায়ের কারিকুরি দেখিয়ে ক্রোয়াট ডিফেন্সকে তটস্থ রেখে বল বাড়ান সামনে থাকা পেদ্রিকে। তার ছোট পাসে বল পেয়ে বক্সের ভেতর থেকে বাকি কাজ সারতে আর ভুল হয়নি পিএসজি মিডফিল্ডার রুইসের।

গোল হজম করে আক্রমণের ধার বাড়ায় ২০১৮ বিশ্বকাপের রানার্সআপ ক্রোয়েশিয়া। ৩৩ থেকে ৪৫ মিনিটের মধ্যে বেশ কয়েকটি সুযোগ তৈরি করলেও গোলের দেখা আর মেলেনি দলটির। উল্টো ইনজুরি টাইমে আরেক গোল খেয়ে ম্যাচ ফেরার সম্ভাবনা প্রায় শেষই হয়ে যায় দলটির।

এই গোলের কারিগর সেই ইয়ামালই। ডান দিক থেকে জায়গা বানিয়ে তার ক্রস নেন বক্সের ভেতর। ক্রোয়েশিয়া খেলোয়াড়দের ফাঁকি দিয়ে অফসাইড ট্র্যাপ এড়িয়ে আলতো টোকায় গোল করেন কারভাহাল। চলতি মাসে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে গোলের পর এবার আন্তর্জাতিক ফুটবলেও নিজের প্রথম গোলের দেখা পান অভিজ্ঞ এই ডিফেন্ডার।

বিরতির পরও আক্রমণের একই ধার বজায় থাকে স্পেনের খেলায়। ৫৪তম আরও একবার প্রতিপক্ষের রক্ষণে ভীতি ছড়ান ইয়ামাল। ছয় গজের ভেতর থেকে তার বাড়ানো বল মোরাতার পায়ে লেগে অল্পের জন্য পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে যায়।

৫৫তম মিনিটে দারুণ দুটি সুযোগ এসেছিল ক্রোয়েশিয়ার সামনে। পোস্টের সামনে থেকে আন্দ্রেজ ক্রামরিকের হেড ঠেকিয়ে দেন ম্যাচে ভালো কিছু সেভ করা উনাই সিমন। এরপর মাতেও কোভাচিচের হেড চলে যায় পোস্টের বাইরে দিয়ে।

৭৯তম মিনিটে ব্রুনো পেটকোভিচকে বক্সেএ ভেতর ফাউল করে হলুদ কার্ড দেখার পাশাপাশি ক্রোয়েশিয়াকে পেনাল্টিও উপহার দেন রদ্রি। তবে পেটকোভিচের নেওয়া পেনাল্টি ঠেকিয়ে দেন সিমন। ফিরতি বল থেকে সতীর্থের পাস থেকে তা জালে পাঠান পেটকোভিচ। তবে অফসাইডের কারণে গোল বাতিল হয়।

শেষ পর্যন্ত ৩-০ ব্যবধান নিয়েই মাঠ ছাড়ে স্পেন। এই ম্যাচের জয়ে তিন পয়েন্ট নিয়ে প্রথম খেলার পর পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে চলে গেলো স্পেন।  

news24bd.tv/SC  

এই রকম আরও টপিক

পাঠকপ্রিয়