বিচারের সম্মুখীন হচ্ছেন অরুন্ধতী রায়

উস্কানিমূলক বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে বিচারের সম্মুখীন হতে যাচ্ছেন বুকার পুরষ্কারজয়ী লেখিকা অরুন্ধতী রায়।

বিচারের সম্মুখীন হচ্ছেন অরুন্ধতী রায়

অনলাইন ডেস্ক

উস্কানিমূলক বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে বিচারের সম্মুখীন হতে যাচ্ছেন বুকার পুরষ্কারজয়ী লেখিকা অরুন্ধতী রায় এবং সেন্ট্রাল কাশ্মীর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক শেখ শওকত হোসেন। ভারত সরকারের সন্ত্রাসবিরোধী ‘অবৈধ কার্যক্রম প্রতিরোধ আইন’ এর আওতায় তাদেড় দুইজনের বিরুদ্ধে বিচারকাজ পরিচালনার জন্য অনুমতি দেয়া হয়েছে। খবর ডেকান হেরাল্ডের।

শুক্রবার (১৪ জুন) দিল্লীর লেফটেন্যান্ট গভর্নর ভি কে সাক্সেনা অরুন্ধতী ও শওকতের বিরুদ্ধে বিচারকার্য পরিচালনার নির্দেশ দেন।

২০১০ সালে কাশ্মীর বিষয়ে উত্তেজনা সৃষ্টিকারী মন্তব্য করার অভিযোগ আনা হয়েছে এই দুইজনের বিরুদ্ধে। দিল্লীর লেফটেন্যান্ট গভর্নর কর্তৃক ভারতীয় পেনাল কোডের ১৫৩-এ, ১৫৩-বি ও ৫০৫ ধারা অনুযায়ী অরুন্ধতী ও শওকতের বিচারকার্য পরিচালনার অনুমতি দেয়ার আট মাস পর এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এলো।

সুশীল পন্ডিত নামে এক ব্যক্তি ২০১০ সালে ‘আজাদী-একমাত্র পথ’ ব্যানারে ‘রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তির জন্য কমিটি’ কর্তৃক আয়োজিত এক কনফারেন্সে অরুন্ধতী ও শওকত উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়েছেন মর্মে অভিযোগ দায়ের করেন, যার ভিত্তিতে একই বছরের নভেম্বর মাসে একটি এফআইআর দায়ের করা হয়।

ভারত সরকারের কর্মকর্তাদের মোটে, অরুন্ধতী এবং শওকত ভারত থেকে কাশ্মীরকে বিচ্ছিন্ন করার পক্ষে কথা বলেছিলেন।

এই দুইজন ছাড়াও কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা সৈয়দ আলী শাহ গিলানী এবং দিল্লী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক এসএআর গিলানীকেও এফআইআরে অভিযুক্ত করা হয়েছিল, কিন্তু তারা আর বেঁচে নেই।

news24bd.tv/ab

পাঠকপ্রিয়