আত্মহত্যার আগে যে ফেসবুক পোস্ট দিয়েছিলেন সাথী

সংগৃহীত ছবি

আত্মহত্যার আগে যে ফেসবুক পোস্ট দিয়েছিলেন সাথী

অনলাইন ডেস্ক

খুলনার হরিণটানা থানার পিঁপড়ামারি এলাকায় গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় দশম শ্রেণির ছাত্রী সাথী আক্তারের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার (১৫ জুন) রাত ১২টার দিকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।  

মৃত সাথী আক্তার হরিণটানা থানার ঠিকরাবাদ পিপড়ামারী এলাকার ইউসুফ শেখের মেয়ে। সাথী প্রগতি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

পরিবারের সদস্যরা জানান, সাথী আক্তারের সঙ্গে একটি এনজিও’র হিসাবরক্ষক রাজ বিশ্বাসের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। মনোমালিন্যের জেরে শনিবার রাত ১২টার দিকে রাজের সঙ্গে মোবাইলে কথা বলার পর নিজ ঘরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে সাথী।

খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। ময়নাতদন্ত শেষে রোববার (১৬ জুন) দুপুরে পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়।

বিকেলে জানাজা শেষে মরদেহ দাফন করা হয়।

এ দিকে আত্মহত্যার চারদিন আগে দেওয়া সাথীর ফেসবুক পোস্ট নিয়ে হইচই শুরু হয়েছে এলাকাজুড়ে। সেই পোস্টে সাথী লেখেন ‘আমারে দেখিবার আইসো শেষ জানাজার আগে, যেন পরকালে তোমায় দেখার একটু স্বাদ জাগে। ’এর পরদিন আরেকটি পোস্টে সাথী লেখেন, ‘আহা শখের পুরুষ, তুমি যে পরিমাণ খেলা দেখাইলা, সে খেলায় মীরজাফরও ফেল’।

হরিণটানা থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘এ ঘটনায় সাথীর বাবা বাদী হয়ে রবিবার দুপুরে থানায় অপমৃত্যু মামলা করেছেন।

খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের ডেপুটি কমিশনার (সাউথ) মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ‘বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। যদি আত্মহত্যার প্ররোচনার সত্যতা পাওয়া যায় তাহলে সেই ধারায় মামলা হবে এবং পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে। ’

news24bd.tv/কেআই

পাঠকপ্রিয়